থিরুভানানথাপুরাম যাওয়ার

থিরুভানানথাপুরাম যাওয়ার

থিরুভানানথাপুরাম ভারতের অন্যান্য বড় শহরগুলি যেমন দিল্লী, মুম্বাই থেকে বিমানপথে ও রেলপথে যাওয়া যায়। এখানে যাওয়া কঠিন নয়। প্রায় সব প্রধান শহর থেকেই এখানে যাওয়া যায়। থিরুভানানথাপুরাম সড়কপথে জাতীয় হাইওয়ের মাধ্যমে কন্যাকুমারী, কোইমবাটোর, মাদ্রাজ এবং বেঙ্গালোর এর সাথে যুক্ত তাই সড়কপথে এখানে আসা খুবই সহজ। Continue reading “থিরুভানানথাপুরাম যাওয়ার”
Social Media
থিরুভানানথাপুরাম ট্রাভেল গাইড

থিরুভানানথাপুরাম ট্রাভেল গাইড

ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যে অবস্থিত থিরুভানানথাপুরাম ভ্রমণের জন্য একটা মনোহর জায়গা। এটা দেশের পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন ও সুপরিকল্পিত শহরগুলির মধ্যে একটি। কেরালার সবটুকু সৌন্দর্য এই শহরে ফুটে উঠেছে এর বিস্ময়কর সবুজ শস্যভূমি ও মনোমুগ্ধকর সাগর সৈকতের জন্য। এই শহর চমতকারভাবে রাজ্যের সংস্কৃতিকে তুলে ধরেছে। নগরীতে প্রবেশের সীমান্তে এর মনোহারী রং যে কাউকে বিস্মিত করবে। Continue reading “থিরুভানানথাপুরাম ট্রাভেল গাইড”
Social Media
পুনে দর্শনীয় স্থানগুলি

পুনে দর্শনীয় স্থানগুলি

সাধারণভাবে মহারাষ্ট্রের সাংস্কৃতিক রাজধানী নামে পরিচিত পুনে মুম্বাই এর ১৭০ কি.মি. দক্ষিণে অবস্থিত। স্তদশ শতকের মহান মারাঠা শাসক ছত্রপতি শিবাজি যিনি এখানকার শিবনেরী দুর্গে জন্বগ্রহণ করেন তাঁর মূল কেন্দ্র ছিল এই শহর। পুনে পেশওয়ার একটি আসনে পরিনত হয় এবং যার অধীনে মারাঠা শক্তি একটি প্রধান রাজনৈতিক শক্তিতে পরিনত হয়। পেশওয়াগন শিল্পের পৃষ্ঠপোশক ছিলেন এবং শহরকে মন্দির, বাগিচা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সমৃদ্ধ করেন। Continue reading “পুনে দর্শনীয় স্থানগুলি”
Social Media
পুনে ট্রাভেল গাইড

পুনে ট্রাভেল গাইড

সাধারণভাবে মহারাষ্ট্রের সাংস্কৃতিক রাজধানী নামে পরিচিত পুনে মুম্বাই এর ১৭০ কি.মি. দক্ষিণে অবস্থিত। স্তদশ শতকের মহান মারাঠা শাসক ছত্রপতি শিবাজি যিনি এখানকার শিবনেরী দুর্গে জন্বগ্রহণ করেন তাঁর মূল কেন্দ্র ছিল এই শহর। পুনে পেশওয়ার একটি আসনে পরিনত হয় এবং যার অধীনে মারাঠা শক্তি একটি প্রধান রাজনৈতিক শক্তিতে পরিনত হয়। পেশওয়াগন শিল্পের পৃষ্ঠপোশক ছিলেন এবং শহরকে মন্দির, বাগিচা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সমৃদ্ধ করেন। Continue reading “পুনে ট্রাভেল গাইড”
Social Media
কিভাবে মহাবলীপুরমে ভ্রমণে যাওয়া যায়

কিভাবে মহাবলীপুরমে ভ্রমণে যাওয়া যায়

লন্ডন, ফ্রাঙ্কফুর্ট, সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর থেকে মাদ্রাজে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটসমূহ পরিচালিত হয়ে থাকে। বাসে পন্ডিচেরী, কাঞ্চিপুরাম এবং মাদ্রাজ থেকে মহাবালিপুরাম যাওয়া যায় প্রতিদিন। ভারতের যেকোন প্রান্ত থেকে বিমান ও ট্রেনযোগে মাদ্রাজ যাওয়া যায়। Continue reading “কিভাবে মহাবলীপুরমে ভ্রমণে যাওয়া যায়”
Social Media
মহাবলীপুরমে ট্রাভেল গাইড

মহাবলীপুরমে ট্রাভেল গাইড

মহাবালিপুরাম তামিলনাড়ু রাজ্যে অবস্থিত এবং পূর্বের মাদ্রাজ বর্তমানের চেন্নাই থেকে ৬০ কি.মি. দুরত্বে এর অবস্থান। বঙ্গোপসাগরের তীরে অবস্থিত এই জায়গায় সৈকত মন্দির থাকায় প্রতি বছর হাজার হাজার পর্যটক এখানে পরিভ্রমণে আসেন। Continue reading “মহাবলীপুরমে ট্রাভেল গাইড”
Social Media
চেন্নাই এ দর্শনীয় স্থানসমূহ

চেন্নাই এ দর্শনীয় স্থানসমূহ

১৬৪০ সালে নির্মিত সেন্ট জর্জ ফোর্ট ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানীর প্রথম ঘাঁটি। বর্তমানে এখানে সচিবালয় ও আইনসভা প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। দুর্গে একটি যাদুঘর রয়েছে যেখানে দুর্লভ জিনিসপত্র রয়েছে। ১৬৭৮ থেকে ১৬৮০ সালে নির্মিত একটি ওল্ড এংলিকান চার্চ এখানে রয়েছে যা বৃটিশ নির্মানের সাক্ষী হয়ে দাড়িয়ে আছে। Continue reading “চেন্নাই এ দর্শনীয় স্থানসমূহ”
Social Media
চেন্নাই ট্রাভেল গাইড

চেন্নাই ট্রাভেল গাইড

পূর্বতন মাদ্রাজ শহর বর্তমানের চেন্নাই হলো তামিল নাড়ু রাজ্যের রাজধানী শহর। এটা দেশের মধ্যে চতুর্থ বৃহত্তম শহর এবং তুলনামূলক অন্যান্য মেট্রোপলিটান শহরের তুলনায় কম জনাকীর্ণ ও দুষিত। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানী এখানে এসে কারবার শুরু করে এবং উন্নতির জন্য এখান থেকে যাত্রা শুরু করে। সর্বশেষ বিজয়নগর শাসক চন্দ্রগিরির রাজা কর্তৃক প্রদত্ত একখন্ড জমির উপর ১৬৩৯ সালে এই নগর প্রতিষ্ঠিত হয়। Continue reading “চেন্নাই ট্রাভেল গাইড”
Social Media
কিভাবে জয়পুর যাওয়া যায়

কিভাবে জয়পুর যাওয়া যায়

আভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে দিল্লী, মুম্বাই, উদয়পুর, যোধপুর, আওরঙ্গাবাদ, কোলকাতা এবং বারানসি থেকে জয়পুর যাওয়া যায়। জয়পুরে কোন আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বর্তমানে নাই। Continue reading “কিভাবে জয়পুর যাওয়া যায়”
Social Media