হেইলংজিয়াং প্রদেশকে জানুন

হেইলংজিয়াং ছিল চীনা কমু¨নিস্ট নিয়ন্ত্রিত প্রথম প্রদেশ। প্রদেশের প্রধান শহর হারবিন যেটা হচ্ছে রাজধানী শহর। সোভিয়েত বাহিনী হেইলংজিয়াংকে চীনাদের কাছে সমর্পন করে। এটা জাপানীদের দখলে ছিল যারা ১৯৪৫ সনে সোভিয়েত বাহিনীর কাছে হেরে যায়। কম্যুনিস্টরা তখন হেইলংজিয়াং এর মাঞ্চুরিয়া থেকে চীনা গৃহযুদ্ধ নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়।

হেইলংজিয়াং এর এলাকা সময়ে সময়ে বৃদ্ধি পেয়েছে। এটা বর্তমান প্রদেশের শুধুমাত্র পশ্চিম অংশ নিয়ে গঠিত ছিল এবং তখন রাজধানী ছিল কিকিহার। সংজিয়াং প্রদেশের বাকী অংশ দখল করলে পরবর্তীতে রাজধানী হয় হারবিন। ১৯৫৪ সনে অঞ্চলগুলো একত্রিত হয়ে বর্তমান হেইলংজিয়াং অঞ্চল গঠিত হয়। হেইলংজিয়াং পরবর্তীতে হুলুনবুইয়ার লীগ নামের মঙ্গোলিয়ান অংশ দখল করে। মাও সে তুং এর সাংস্কৃতিক বিপ্লবের সময় এটা সংঘটিত হয়।

হেইলংজিয়াং এর জলবায়ু
হেইলংজিয়াং এ শীতকাল দীর্ঘ হয় এবং এটি তীব্রতাসম্পন্ন। এখানে সাব-আর্কটিক আবহাওয়া বিদ্যমান। জানুয়ারী মাস শীতলতম যখন তাপমাত্রা -৩১ ডিগ্রী থেকে -১৫ ডিগ্রী সে. এর মধ্যে ওঠানামা করে। গ্রীষ্মে জুলাই মাসে গড় তাপমাত্রা ১৮ ডিগ্রী থেকে ২৩ ডিগ্রী এর মধ্যে থাকে। গ্রীষ্মকাল ক্ষণস্থায়ী, মাঝে মাঝে ঠান্ডা থাকে। গ্রীষ্মকালেই বেশির ভাগ বৃষ্টিপাত হয়।

হেইলংজিয়াং এর ভৌগলিক অবস্থা
হেইলংজিয়াং এর অধিকাংশেই পর্বতমালা রয়েছে যেমন, ঝাংগুয়াংকাই পর্বত, লাওই পর্বত, লেসার খিংগান রেঞ্জ, গ্রেটার খিংগান রেঞ্জ এবং ওয়ান্ডা পর্বত। মাউন্ট দাতুডিংজি হচ্ছে সর্বোচ্চ শৃংগ এবং উচ্চতা ১৬৯০ মিটার অথবা ৫৫৪৫ ফিট। এটা জিলিন প্রদেশের সীমান্তে অবস্থিত। গ্রেটার খিংগান রেঞ্জ চীনের সবচেয়ে বড় বন এবং বন বিভাগের কার্যক্রম এই অঞ্চল থেকেই পরিচালিত হয়।

উত্তর সীমান্তে আমুর উপত্যকা রয়েছে। প্রদেশের অন্যান্য অংশ নীচু এবং সমতল। নদীগুলোর মধ্যে নেন, সংহুয়া এবং মুদান অন্যতম।

নদী এবং আমুর উপত্যকা সৃষ্ট যুক্ত নদীগুলো সমতলে প্রবাহিত। সীমান্তে রাশিয়ার প্রিমরস্কি ক্রাইসহ খানকা ও সিংকাই হ্রদ দেখা যাবে এই প্রদেশে।

হেইলংজিয়াং এর কয়েকটি বড় শহর রয়েছে। যেমন, ডাকিং, হারবিন, মুদানজিয়াং, শুয়াংজিয়াশান, জিয়ামুসি, ঈচুন, হেইহে, কিকিহার এবং হেগাং।

হেইলংজিয়াং এর স্থানীয় অর্থনীতি
হেইলংজিয়াং এ সেই সমস্ত ফসলই জন্বায় যেগুলি তীব্র শীত আবহাওয়ায় জন্বানোর উপযোগী। প্রধান শস্যগুলো হচ্ছে গম, ভুট্টা এবং সয়াবিন। সূর্যমূখী, তিসি এবং গাজর হচ্ছে এই এলাকার বানিজ্যিক ফসল সমূহ।

হেইলংজিয়াং বনজ সম্পদে পরিপূর্ণ এবং চীনের চেরাই কাঠের প্রধান সোর্স। সাধারনতঃ কোরিয়ান পাইন ও অন্যান্য পাইন হচ্ছে চেরাই কাঠ তৈরীর প্রধান গাছ। এখানে লার্চ গাছও জন্বায় যেটা দিয়েও চেরাই কাঠ তৈরী হয়। ডাক্সিনগান ও জিয়াওজিংগান পর্বত সমূহে ভয়ংকর সাইবেরিয়ান বাঘের বাস, সেইসাথে বনবিড়াল ও লাল মাথাবিশিষ্ট সারস হেইলংজিয়াং এর বনে পাওয়া যায়।

সাধারন গৃহপালিত পশুর মধ্যে গরু-ছাগল ও ঘোড়া পাওয়া যায় এখানে। এখানে গরুর প্রজনন উচ্চ এবং চীনের অন্যান্য প্রদেশের তুলনায় সবচেয়ে বেশি দুগ্ধ এখানে উতপাদিত হয়।

হেইলংজিয়াং খনিজসম্পদে পূর্ণ যেমন সোনা, কয়লা, গ্রাফাইট এবং অন্যান্য খনিজ রয়েছে। ডাকিং এ তেল খনি রয়েছে যেটা চীনের গুরুত্বপূর্ণ তেল সরবরাহকারী। হেইলংজিয়াং এ গুরুত্বপূর্ণ উইন্ডমিলসমূহ রয়েছে যেটা বিদ্যুত উতপাদনে ব্যবহৃত হয়।

হেইলংজিয়াং এ চীনের অধিকাংশ উত্তরাঞ্চল অবস্থিত। এই অঞ্চল চীনা শিল্পের মূল ভিত্তি। এখানকার শিল্পগুলো হচ্ছে কাঠ, কয়লা, খাদ্য, যন্ত্রপাতি এবং পেট্রোলিয়াম। হেইলংজিয়াং হচ্ছে চীন ও রাশিয়ার মধ্যে বানিজ্য তোরণ।

এ বছরে হেইলংজিয়াং এর শহুরে এলাকায় মাথাপিছু উপার্জন ছিল ১০,২৪৫ ইউয়ান। এটা আগের বছরের তুলনায় ১১.৬% বেশী। ২০০৭ সনে হেইলংজিয়াং এর সর্বনিম্ন জিডিপি ছিল ৭০৮ বিলিয়ন ইউয়ান। বার্ষিক প্রবৃদ্ধি ১২.১% এবং মাথাপিছু জিডিপি ছিল ১৮,৫০০ ইউয়ান।

হেইলংজিয়াং ভ্রমণ স্থানসমূহ
হেইলংজিয়াং এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শহর হচ্ছে হারবিন। এই প্রাদেশিক রাজধানীতে প্রচুর মিশ্র সংস্কৃতি দেখতে পাওয়া যায়। রাশিয়া ও চীনা ঐতিহ্যগত সংস্কৃতির বাইরে এখানে দেখা যাবে আধুনিক সংস্কৃতির মিশ্রণ। এখানে সারা হারবিন জুড়ে প্রচুর খ্রিস্টীয় চার্চ রয়েছে যেমন, ক্যাথোলিক, রাশিয়ান অর্থোডক্স এবং প্রোটেস্ট্যান্ট চার্চ।

প্রাকৃতিক বরফ অনেক আনন্দ ও বুদ্ধির খোরাক যোগায় হেইলংজিয়াং এ। হেইলংজিয়াং বরফের ভাষ্কর্য প্রদর্শনের জন্য বিখ্যাত। ২০০০ এরও বেশি বরফ ভাষ্কর্য এখানে প্রদর্শিত হয় ২০০৭ সালের ৮ম ওয়ার্ল্ড বরফ ও তুষার প্রতিযোগিতায়।

১৭১৯ ও ১৭২১ সনের আগ্নেয়গিরির অগ্নুতপাতের কারণে আমুর উপত্যকায় সিরিজ ৫টি হ্রদ সৃষ্টি হয়। এই হ্রদগুলো একে অপরের সাথে সংযুক্ত। দ্বিতীয় লেকের ভূতাত্বিক দৃশ্য খুবই জমকালো এবং বিখ্যাত। জিংবো হ্রদ মুদান নদীর অংশ যেটা অগ্নুতপাতের সময়ে সুন্দর আকৃতি তৈরী করেছে। এটা দেখতে পাওয়া যাবে নিংগান কাউন্টিতে এবং এখানে ডিয়াওশুইলুউ নামে সুদৃশ্য জলপ্রপাত রয়েছে।

Social Media