লিয়াওনিং প্রদেশকে জানুন

লিয়াওনিং প্রদেশ চীনের মধ্যে অবস্থিত। লিয়াওনিং প্রদেশের হলুদ সাগরের সাথে সীমান্ত রয়েছে যেটা কোরিয়ান উপসাগর এবং দক্ষিণে বোহাই নামে পরিচিত। লিয়াওনিং ইনার মঙ্গোলিয়ার সাথেও যুক্ত। পশ্চিমে হেবেই এবং দক্ষিণ-পূর্বে উত্তর কোরিয়ার সাথেও সীমান্ত রয়েছে।

জিলিন ও লিয়াওনিং উত্তর কোরিয়ার সাথে ইয়ালু নদী দ্বারা চিহ্নিত। এটা কোরিয়ান উপসাগরে গিয়েছে উত্তর কোরিয়ার শিনুইজু ও ডাংডং এবং লিয়াওনিং এর মধ্য দিয়ে।

লিয়াওনিং এর ইতিহাস
১৯৫৪ সালের আগে লিয়াওনিং এর অস্তিত্ব ছিল না। যখন ১৯৪৯ সালে চীনা গণপ্রজাতন্ত্রী গঠিত হলো তখন দুইটি প্রদেশ লিয়াওডং ও লিয়াওসি বিদ্যমান ছিল শেনইয়াং, লুডা, আনশান, ফুশান এবং বেনসি মহানগরীর পাশাপাশি। এগুলো পরে লিয়াওনিং এর সাথে যুক্ত হয়।

পূর্বের রাহে প্রদেশের কিছু অংশ লিয়াওনিং এর সাথে যুক্ত হয় ১৯৫৫ সালে। যদিও ইনার মঙ্গোলিয়ার কিছু অংশ সাংস্কৃতিক বিপ¬বের সময় লিয়াওনিং এর সাথে যুক্ত হয়েছিল কয়েক বছর পর তা ফেরত যায়।

লিয়াওনিং এর ভৌগলিক অবস্থান
লিয়াওনিং এর কয়েক প্রকার ভৌগলিক অঞ্চল রয়েছে, পশ্চিমাঞ্চল উচ্চ। নুলুএরহু পর্বতমালা পশ্চিমের উচ্চভূমি অধিকার করেছে। মধ্য লিয়াওনিং তুলনামূলক নীচু ও সমতল।

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১৩৩৬ মিটার উচ্চতাসম্পন্ন মাউন্ট হুয়াবজি লিয়াওনিংএর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ।

লিয়াওনিং এর গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলো হলো শেনইয়াং, ডালিয়ান, আনশান, লিয়াওইয়াং, ফুশুন এবং ডাংডং।

লিয়াওনিং প্রদেশের অর্থনীতি
চীনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে লিয়াওনিংএর অর্থনীতিই বৃহত্তম। ২০০৭ সালে জিডিপি ছিল চমক লাগা ১.১০২ ট্রিলিয়ন ইউয়ান এবং মাথাপিছু জিডিপি ছিল ২৫,৭২৫ ইউয়ান।

লিয়াওনিং প্রদেশের আকর্ষণীয় স্থানসমূহ
ইউনেস্কো লিয়াওনিং এর মুকডেন প্রাসাদকে হেরিটেজ সাইটের স্বীকৃতি দিয়েছে। এটা বেইজিংএর রাজকীয় প্রাসাদের সম্প্রসারন। মুকডেন প্রাসাদ ছিল প্রাচীন কিং রাজবংশের যারা তাদের রাজধানী লিয়াওনিং থেকে বেইজিং এ সরিয়ে নিয়েছিল।

মুকডেন প্রাসাদ নিষিদ্ধ নগরী বেইজিং এর মতো প্রসিদ্ধ না হলেও কিং রাজবংশের ঐতিহ্য এতে রয়েছে।

হেরিটেজ সাইটের অন্তর্ভূক্ত ‘থ্রী টম্বস’ কিং রাজবংশের সময়ে তৈরী।

লিয়াওনিং ভ্রমণের সময় যদি আপনার সময় থাকে অবশ্যই জেড পাথরে তৈরী ‘আনশান জেড বুদ্ধ’ মুর্তি পরিদর্শন করবেন। এটা পৃথিবীর বৃহত্তম বুদ্ধ মুর্তি।

আপনি রাশিয়ান বা জাপানী হলে অবশ্যই ডালিয়ান শহর দেখবেন জাপানী ও রাশিয়ান স্থাপত্য দেখার জন্য।

উত্তর কোরীয় সীমান্তের সাথে শিনুইজু একটি মডারেট শহর। লিয়াওনিং ভ্রমনের পূর্বে আপনি অবশ্যই প্রাদেশিক ক কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় ভ্রমণ সংক্রান্ত কাগজপত্র নিয়ে নিবেন লিয়াওনিংএর কিছু কিছু এলাকা ভ্রমণের জন্য

Social Media